সংবিধানের তৃতীয় ভাগ- মৌলিক অধিকার

বিগত সালের BCS Preliminary- তে এখান থেকে প্রশ্ন এসেছে টি।

বাংলাদেশ সংবিধানের তৃতীয়ভাগ মৌলিক অধিকার। তৃতীয়ভাগের অন্তর্ভূক্ত ধারা ২৬ থেকে ৪৭ পর্যন্ত মোট ২২ টি মৌলিক অধিকার বিষয়ক অনুচ্ছেদ।

প্রধান প্রধান ধারা
২৯।(৩) তে সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতির কথা বলা আছে। ৩৩। গ্রেপ্তার ও আটক সম্পর্কে রক্ষাকবচ- এতে বলা আছে যে কাউকে গ্রেফতারের কারণ না জানিয়ে পাহারায় আটক করে রাখা যাবে না, আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে হবে, নিজের পক্ষে আইনজীবী নিয়গ করতে পারবে, ও গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিকে গ্রেফতারের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নিকটস্থ আদালতে হাজির করতে হবে। বাংলাদেশ সংবিধানে ৭টি মৌলিক অধিকারের কথা বলা আছে, ৩৬ অনুচ্ছেদ থেকে ৪২ অনুচ্ছেদ পর্যন্ত। ৩৬ নং অনুচ্ছেদে চলাফেরার স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে। ৩৭ এ সভা সমাবেশের স্বাধীনতা ও ৩৮ এ সংগঠনের স্বাধীনতা দেওয়া আছে কিন্তু ধর্ম ভিত্তিক সংগঠন করা যাবে না। ৩৯। (১) চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতার নিশ্চয়তাদান। ৩৯।(২)(খ) সংবাদক্ষেত্রের স্বাধীনতার কথা বলা আছে। ৪১ নিজ নিজ ধর্ম পালনের অধিকার আছে। ৪৪ এই ভাগে বর্ণিত মৌলিক অধিকার লঙ্ঘিত হলে তা বলবৎ করার জন্য সংবিধানের ১০২(১)(হাইকোর্ট বিভাগের ক্ষমতা) অনুযায়ী মামলা করা যাবে। এ মামলাকে রিট বলে। ৪৭(৩) এ যুদ্ধাপরাধী ও মানবতাবিরোধী অপরাধী দের বিচারের কথা বলা হয়েছে।

এভাবে পড়লে মনে রাখা সহজ হবে
(২৬) মৌলিক অধিকারের সহিত অসমঞ্জস আইন বাতিল করলে (২৭) আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান হবে এবং (২৮) ধর্মীয় বৈষম্য দূর হবে ফলে (২৯) সরকারি চাকরিতে নিয়োগ লাভে সবাই সমান সুযোগ পাবে।

(৩০) বিদেশে খেতাব গ্রহণ করতে (৩১) আইনের আশ্রয় নিতে হবে এতে (৩২)কোন ব্যক্তির স্বাধীনতার অধিকার ক্ষুণ্ন হলে বা (পুলিশ)(৩৩) গ্রেফতার করে (৩৪) জবরদস্তিমূলক শ্রম করালে (৩৫) বিচার করে দণ্ড দেওয়া যাবে।

(৩৬) চলাফেরা করে (৩৭) সমাবেশ (৩৮) সংগঠনে (৩৯) বাক স্বাধীনতার বক্তৃতা দেওয়া কে (৪০) পেশা বা (৪১) ধর্ম হিসাবে নিয়ে (৪২) সম্পত্তি অর্জন করা ঠিক নয়।

(৪৩) (গৃহ) চিঠি পত্রের ও যোগাযোগের অন্যান্য উপায়ের গোপনীয়তার অধিকার ক্ষুণ্ন হলে (৪৪) মৌলিক অধিকার বলবৎ থাকে না, তখন (৪৫) আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর (৪৬) দায়িত্ব(দায়মুক্তি) (৪৭) তাদেরকে হেফাজত করা।

২৬। মৌলিক অধিকারের সহিত অসমঞ্জস আইন বাতিল
২৭। আইনের দৃষ্টিতে সমতা [২৪তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]
২৮। ধর্ম, প্রভৃতি কারণে বৈষম্য

(১) রাষ্ট্র কোন নাগরিকের প্রতি কোন বৈষম্য করতে পারবে না।
(২) নারী পুরুষের সমান অধিকার। [২৭তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]
(৩) কেবল ধর্ম, গোষ্ঠী, বর্ণ, নারী পুরুষভেদ বা জন্মস্থানের কারণে কোন বৈষম্য করা হবে না।
(৪) রাষ্ট্র নারী বা শিশুদের অনুকূলে কিংবা অনগ্রসর অংশের অগ্রগতির জন্য বিশেষ বিধান-প্রণয়ন করতে পারবে। [২১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]

২৯। সরকারী নিয়োগ-লাভে সুযোগের সমতা
৩০। বিদেশী, খেতাব, প্রভৃতি গ্রহণ নিষিদ্ধকরণ
৩১। আইনের আশ্রয়-লাভের অধিকার
৩২। জীবন ও ব্যক্তি-স্বাধীনতার অধিকাররক্ষণ
৩৩। গ্রেপ্তার ও আটক সম্পর্কে রক্ষাকবচ
৩৪। জবরদস্তি-শ্রম নিষিদ্ধকরণ
৩৫। বিচার ও দন্ড সম্পর্কে রক্ষণ
৩৬। চলাফেরার স্বাধীনতা
৩৭। সমাবেশের স্বাধীনতা
৩৮। সংগঠনের স্বাধীনতা
৩৯। চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা এবং বাক্-স্বাধীনতা
৪০। পেশা বা বৃত্তির স্বাধীনতা
৪১। ধর্মীয় স্বাধীনতা
৪২। সম্পত্তির অধিকার
৪৩। গৃহ ও যোগাযোগের রক্ষণ
৪৪। মৌলিক অধিকার বলবৎকরণ
৪৫। শৃঙ্খলামূলক আইনের ক্ষেত্রে অধিকারের পরিবর্তন
৪৬। দায়মুক্তি-বিধানের ক্ষমতা
৪৭। কতিপয় আইনের হেফাজত
৪৭ক। সংবিধানের কতিপয় বিধানের অপ্রযোজ্যতা

সম্পূর্ণ ধারা দেখতে ভিজিট করুন- গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান

প্রস্তাবনা
প্রথম ভাগ- প্রজাতন্ত্র

দ্বিতীয় ভাগ- রাষ্ট্র পরিচালনার মূলনীতি

চতুর্থ ভাগ-নির্বাহী বিভাগ

পঞ্চম ভাগ-আইনসভা
১ম পরিচ্ছেদ-সংসদ
২য় পরিচ্ছেদ-আইন প্রনয়ন ও অর্থসংক্রান্ত পদ্ধতি
৩য় পরিচ্ছেদ-অধ্যাদেশপ্রণয়ন-ক্ষমতা

ষষ্ঠ ভাগ- বিচারবিভাগ

সপ্তম ভাগ- নির্বাচন

অষ্টম ভাগ- মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক

নবম ভাগ-বাংলাদেশের কর্মবিভাগ

দশম ভাগ-সংবিধান-সংশোধন

একাদশ ভাগ- বিবিধ

তফসিল

Add a Comment