Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

Refrigerator

রেফ্রিজারেটর(Refrigerator) (কথ্যভাষায় ফ্রিজ বা হিমায়ক) কৃত্রিমভাবে খাদ্য-পানীয় ঠান্ডা করে সংরক্ষণ করার একটি জনপ্রিয় গৃহস্থালি যন্ত্র। এতে থাকে তাপনিরোধক কম্পার্টমেন্ট এবং একটি হিট পাম্প (যান্ত্রিক, বৈদ্যুতিক বা রাসায়নিক) যা ফ্রিজের ভেতর থেকে তাপ বাইরে বের করে দেয়, ফলে চারপাশের পরিবেশের তাপমাত্রার চেয়ে ফ্রিজের অভ্যন্তরে তাপমাত্রা অনেক কম থাকে। উন্নত বিশ্বে খাদ্য সংরক্ষণে অপরির্যভাবে রেফ্রিজারেশন করা হয়। নিম্ন তাপমাত্রায় ব্যাকটেরিয়ার কম প্রজনন করে ও কম ছড়ায়, সেকারণে খাদ্য সহজে পচে না। রেফ্রিজারেটরের ভেতর তাপমাত্রা গলনাঙ্কের সামান্য উপরে থাকে। পচনশীল খাদ্যে সংরক্ষণের জন্য সবচেয়ে অনুকূল তাপমাত্রা হলো ৩ থেকে ৫ °সে (৩৭ থেকে ৪১ °ফা). রেফ্রিজারেটরের অনুরূপ যন্ত্র ফ্রিজার(Freezer) কিন্তু গলনাঙ্কের চেয়ে কম তাপমাত্রা বজায় রাখে। এর আগে প্রায় দেড় শতাব্দী ধরে ঘরবাড়িতে খাদ্য সংরক্ষণে ব্যবহৃত হতো আইসবক্স। সেকারণে আমেরিকায় রেফ্রিজারেটরকে কখনো কখনো আইসবক্সও বলা হয়ে থাকে।

ফ্রেয়ন(Freon): একধরণের Chloro-Fluoro-Carbons(CFC). রেফ্রিজারেটরে ব্যবহার করা হয় ডাইক্লোরো ডাইফ্লোরো মিথেন(CCl2F2). রেফ্রিজারেটরের কমপ্রেসর ফ্রেয়নকে বাষ্পে পরিণত করে।

ক্লোরিন মূলকের চেয়ে ফ্লোরিন মূলক ওজোন স্তরের সাথে বিক্রিয়ায় কম সক্রিয়। তাই পরিবেশের কথা চিন্তা করে, ক্লোরিন যৌগের পরিবর্তে ফ্লোরিনের যৌগ ব্যবহার হচ্ছে। ফ্লোরিনের যৌগ হিসাবে টেট্রাফ্লোরো ইথেন ব্যবহার করা হয়। যা ওজোন স্তরের ক্ষয় করে না।


👉 Read More...👇

Add a Comment