সংবিধান প্রণয়নের ইতিহাস

বিগত সালের BCS Preliminary- তে এখান থেকে প্রশ্ন এসেছে 3 টি।

সংবিধান প্রণয়ন
গণপরিষদ আদেশ অনুযায়ী সংবিধান প্রণয়নের উদ্দেশ্যে ১৯৭২ সালের ১১ই এপ্রিল, অর্থাৎ গণপরিষদের দ্বিতীয় অধিবেশনে আইনমন্ত্রী ড. কামাল হোসেনকে সভাপতি করে ৩৪ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়।

এ কমিটির একমাত্র মহিলা সদস্য বেগম রাজিয়া বানু (নারী আসন, জাতীয় পরিষদ), এবং এক মাত্র বিরোধীদলীয় সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত১৭ই এপ্রিল এ কমিটির প্রথম বৈঠক হয়, ১৭ই এপ্রিল থেকে ৩রা অক্টোবর পর্যন্ত এই কমিটি বিভিন্ন পর্যায়ে বৈঠক করে। জনগণের মতামত সংগ্রহের জন্য মতামত আহবান করা হয়। সংগৃরহীত মতামত থেকে ৯৮টি সুপারিশ গ্রহণ করা হয়। সেগুলো মূল্যায়নের পর ১০ জুন বিলের আকারে সংবিধানের খসড়া প্রস্তুত করা হয়।

অভিজ্ঞ লোকেরা বিভিন্ন দেশে দেশে ভ্রমণ করে তাদের নিজ নিজ সংবিধানের বৈশিষ্ট্য পর্যবেক্ষণ করতে থাকেন। সংবিধান রচনা কমিটি ভারত ও যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের কার্যকারিতা পর্যবেক্ষণ করে বাংলাদেশের সংবিধান রচনা করেন। ১৯৭২ সালের ১১ অক্টোবর কমিটি খসরা চূড়ান্ত করেন। ড. কামাল হোসেন ১৯৭২ সালের ১২ অক্টোবর গণপরিষদে খসড়া সংবিধান উত্থাপিত করেন।

১৯ অক্টোবর প্রথম পাঠ হয় এবং ৩১ অক্টোবর ২য় পাঠ হতে থাকে। সংবিধান লেখার পর এর বাংলা ভাষারূপ পর্যালোচনার জন্য ড. আনিসুজ্জামানকে আহবায়ক, সৈয়দ আলী আহসান এবং মযহারুল ইসলামকে ভাষা বিশেষজ্ঞ হিসেবে একটি কমিটি গঠন করে পর্যালোচনার ভার দেয়া হয়। খসড়া সংবিধানে ৬৫ টি সংশোধনী যুক্ত হয়। ১৯৭২ সালের ৪ নভেম্বর গণপরিষদে বাংলাদেশের সংবিধান গৃহীত হয়।

১৪-১৫ ডিসেম্বর ৯৩ পাতার হস্তলিখিত সংবিধানে ৩০৯ জন সদস্য স্বাক্ষর করেন। ন্যাপ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত হস্তলিখিত সংবিধানে স্বাক্ষর করেননি। এবং ১৬ ডিসেম্বর ১৯৭২ (বিজয় দিবস) থেকে কার্যকর হয়। [40, 20, 10তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]

গণপরিষদ ভবন, যা বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন, সেখানে সংবিধান প্রণয়ন কমিটির বৈঠকে সহযোগিতা করেন ব্রিটিশ আইনসভার খসড়া আইন-প্রণেতা আই গাথরি।

সংবিধান ছাপাতে ১৪ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছিলো। সংবিধান অলংকরণের জন্য পাঁচ সদস্যের কমিটি করা হয়েছিল যার প্রধান ছিলেন শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন। এই কমিটির সদস্য ছিলেন শিল্পী হাশেম খান, জনাবুল ইসলাম, সমরজিৎ রায় চৌধুরী ও আবুল বারক আলভী। শিল্পী হাশেম খান অলংকরণ করেছিলেন। হস্ত লিখিত সংবিধানটি মূল লেখক ছিলেন শিল্পি আব্দুর রউফ। ১৯৪৮ সালে তৈরী ক্র্যাবটি ব্রান্ডের দুটি অফসেট মেশিনে সংবিধানটি ছাপা হয়। মূল সংবিধানের কপিটি বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে সংরক্ষিত আছে।

সংবিধান কার্যকর হওয়ার সময় রাষ্ট্রপতি ছিলেন বিচারপতি আবু সাইদ চৌধুরী এবং প্রধানমন্ত্রী ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সংবিধানটি ১১ টি ভাগে বিভক্ত। এতে একটি প্রস্তাবনা, ৭ টি তফসিল ও ১৫৩ টি অনুচ্ছেদ রয়েছে।

৭২ এর সংবিধান দেখুন।

Add a Comment