Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

16th Preliminary

1. ’অচিন’ শব্দের ‘অ’ উপসর্গটি কোন অর্থে ব্যবহৃত?

  • নেতিবাচক
  • বিয়োগান্ত
  • নঞর্থক
  • অজানা

Answer : C

টিকাঃ

বাংলা উপসর্গ অ এর ব্যবহার-
নিন্দিত অর্থে – অকেজো (নিন্দিত কাজ করে যে), অচেনা, অপয়া।
অভাব অর্থে – অচিন (চিন-পরিচয়ের অভাব, না চেনা-নঞর্থক), অজানা, অথৈ।
ক্রমাগত অর্থে- অঝোর (ক্রমাগতভাবে ঝরতে থাকা), অঝোরে।

2. ‘অবমূল্যায়ন’ ও ‘অবদান’ শব্দ দুটিতে ‘অব’ উপসর্গটি সম্পর্কে কোন মন্তব্যটি ঠিক?

  • দুটি শব্দে উপসর্গটির অর্থ আপাত-বিচারে ভিন্ন হলেও আসলে এক
  • শব্দ দুটিতে উপসর্গটি মোটামুটি একই অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে
  • শব্দ দুটিতে উপসর্গটি একই অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে
  • দুটি শব্দে উপসর্গটির অর্থ দুই রকম

Answer : D

টিকাঃ

‘অবমূল্যায়ন’এ অব উপসর্গটি ব্যবহার হয়েছে ‘নিচে/কমে’ অর্থে। ‘অবমূল্যায়ন’ মানে দাম/মূল্য কমে যাওয়া। কিন্তু ‘অবদান’ শব্দটিতে অব উপসর্গটি সম্যক বা বিশিষ্টার্থে ব্যবহার হয়েছে। কেননা বিশেষ দানকেই আমরা অবদান বলে থাকি।

3. ‘মানুষের মাঝে স্বর্গ নরক, মানুষেতে সুরাসুর’- এ পঙক্তিটি কার রচনা?

  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
  • কাজী নজরুল ইসলাম
  • শেখ ফজলুল করিম
  • শামসুর রাহমান

Answer : C

টিকাঃ

বাংলা সাহিত্যের গুরুত্বপূর্ণ উক্তি ও পঙক্তিমালা দেখুন।

4. “পথিক তুমি পথ হারাইয়াছ” – কথাটি কার?

  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
  • বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
  • মীর মোশাররফ হোসেন
  • শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

Answer : B

টিকাঃ

উক্তিটি বঙ্কিমচন্দ্রের দ্বিতীয় উপন্যাস ‘কপালকুণ্ডলা’ থেকে নেওয়া হয়েছে। রোমান্টিক উপন্যাস হিসাবে বাংলা সাহিত্যে কপালকুণ্ডলার স্থান অতি উচ্চ। উপন্যাসের নায়িকা কপালকুণ্ডলা নায়ক নবকুমারের উদ্দেশ্যে এ কথাটি বলেন।

5. “সব কটা জানালা খুলে দাও না” – এর গীতিকার কে?

  • মরহুম আলতাফ মাহমুদ
  • মরহুম নজরুল ইসলাম বাবু
  • ড. মনিরুজ্জামান মরহুম
  • ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল

Answer : B

টিকাঃ

নজরুল ইসলাম বাবু রচিত “সব কটা জানালা খুলে দাও না” গানটির সুর করেছেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল এবং গানটি গেয়েছেন সাবিনা ইয়াসমিন। অপরদিকে “আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি”- গানটির গীতিকার আব্দুল গাফফার চৌধুরী এবং দ্বিতীয় সুরকার আলতাফ মাহমুদ।

6. কবি কাজী নজরুল ইসলাম ‘সঞ্চিতা’ কাব্যগ্রন্থটি কাকে উৎসর্গ করেছিলেন?

  • বারীন্দ্রকুমার ঘোষকে
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে
  • বীরজাসুন্দরী দেবীকে
  • মুজাফফর আহমদকে

Answer : B

টিকাঃ

সঞ্চিতা হল নজরুলের শ্রেষ্ঠ কাব্য সংকলন। এটি রবীন্দ্রনাথকে উৎসর্গ করেন। এতে ৭৮টি কবিতা ও গান আছে। নজরুল ঢাকা বিশ্ববিদ্যলয়ের ছাত্রী ফজিলাতুন্নেসার প্রেমে পড়েন। তার সাথে প্রেম ভঙ্গের পর সঞ্চিতা কাব্যগ্রন্থটি তাকে উৎসর্গ করলে সে আপত্তি জানায় তখন তিনি রবীন্দ্রনাথকে উৎসর্গ করেন। অপরদিকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কাজী নজরুল ইসলামকে তাঁর বসন্ত কাব্যটি উৎসর্গ করেন। আরও দেখুন- কাজী নজরুল ইসলাম -সাহিত্য উৎসর্গ।

7. জীবনানন্দ দাশের জন্মস্থান কোন জেলায়?

  • বরিশাল জেলা
  • ফরিদপুর জেলা
  • ঢাকা জেলা
  • রাজশাহী জেলা

Answer : A

টিকাঃ

জীবনানন্দ দাশ ১৮৯৯ খ্রিষ্টাব্দে বরিশাল শহরে জন্মগ্রহণ করেন।
তাঁর পিতার নাম সত্যানন্দ দাশ, মাতা কুসুমকুমারী দাশ। কুসুমকুমারী দাশও ছিলেন একজন স্বভাবকবি। তাঁর সুপরিচিত কবিতা আদর্শ ছেলে আজও শিশুশ্রেণীর পাঠ্য।

8. ‘সমকাল’ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন-

  • বিনয় ঘোষ
  • সিকান্দার আবু জাফর
  • মোহাম্মদ আকরাম খাঁ
  • তফাজ্জল হোসেন

Answer : B

টিকাঃ

সমকাল: মাসিক সাহিত্য পত্রিকা, সম্পাদক সিকান্দর আবু জাফর। ঢাকা থেকে প্রকাশিত হত।
মোহাম্মদ আকরাম খাঁ সম্পাদিত পত্রিকা – দৈনিক খাদেম ও দৈনিক মোহাম্মাদী।
তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া সম্পাদিত পত্রিকা- ইত্তেফাক।

9. “জ্ঞান যেখানে সীমাবদ্ধ, বুদ্ধি সেখানে আড়ষ্ট, মুক্তি সেখানে অসম্ভব।”- এ উক্তিটি কোন পত্রিকার প্রতি সংখ্যায় লেখা থাকত?

  • সওগাত
  • মোহাম্মদী
  • সমকাল
  • শিখা

Answer : D

টিকাঃ

মুসলিম সাহিত্য-সমাজের বার্ষিক মুখপত্র শিখা প্রথম প্রকাশিত হয় ১৩৩৩ বঙ্গাব্দের চৈত্র মাসে। শিখার মোট পাঁচটি সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছিল। শিখার প্রতিটি সংখ্যায় মুসলিম সাহিত্য-সমাজের সাময়িক অধিবেশন ও বার্ষিক সম্মেলনের বিবরণ এবং সাহিত্য-সভায় পঠিত রচনা প্রকাশিত হত। মুসলিম সাহিত্য-সমাজের কার্যক্রম দশ বছর (১৯২৬-১৯৩৬) সক্রিয়ভাবে চালু ছিল। শিখার মুখবাণী ছিল –

‘জ্ঞান যেখানে সীমাবদ্ধ, বুদ্ধি সেখানে আড়ষ্ট, মুক্তি সেখানে অসম্ভব’।

11. প্রত্যয়গতভাবে শুদ্ধ কোনটি?

  • উৎকর্ষতা
  • উৎকর্ষ
  • উৎকৃষ্ট
  • উৎকৃষ্টতা

Answer : B

টিকাঃ

উৎ + √কৃষ্ + ত = উৎকৃষ্ট , এটি বিশেষণ, তাই এর সাথে ‘তা’ প্রত্যয় যোগ করে বিশেষ্য করা যায় যথা- উৎকৃষ্টতা।
উৎ + √কৃষ্ + অ = উৎকর্ষ, এটি বিশেষ্য, তাই আবার ‘তা’ প্রত্যয় যোগ করে বিশেষ্য বানাতে গেলে ভুল হবে।
তাই উৎকর্ষ ও উৎকৃষ্ট দুটোই ঠিক।

18. একজন দোকানদার ৭ ১/২% ক্ষতিতে একটি দ্রব্য বিক্রয় করল। যদি দ্রব্যটির ক্রয়মূল্য ১০% কম হত এবং বিক্রয়মূল্য ৩১ টাকা বেশী হত, তাহলে তার ২০% লাভ হোত। দ্রব্যটির ক্রয়মূল্য কত?

  • ১০০ টাকা
  • ২০০ টাকা
  • ৩০০ টাকা
  • ৪০০ টাকা

Answer : B

টিকাঃ