Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

আরব লীগ

আরব লীগ(Arab League), যা আরব দেশগুলোর একটি সংগঠন। ভৌগোলিকভাবে আরব উপদ্বীপ(Peninsula) উত্তর আফ্রিকা ও এর আশেপাশের আরব দেশগুলি নিয়ে গঠিত। আরব লীগ ১৯৪৫ সালের ২২ মার্চ মিশরের কায়রোতে গঠিত হয়েছিল। [৩৬তম বিসিএস প্রিলিমিনারি] অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও পারস্পরিক বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করার উদ্দেশ্যে এ সংগঠন প্রতিষ্ঠা করা হয়। প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছয়টি দেশ: মিশর , ইরাক, ট্রান্সজর্ডান (১৯৪৯ সালে জর্ডান নামকরণ), লেবানন, সৌদি আরব এবং সিরিয়া। ৫ মে ১৯৪৫ সালে ইয়েমেন সদস্য হিসাবে যোগদান করেন। [২৫তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]

সদর দপ্তর
১৯৭৯ সালের মিশর ইসরাইল শান্তি চুক্তি পরিপ্রেক্ষিতে ১৯৭৯ সালেই আরবলীগ মিশরের সদস্যপদ স্থগিত করে, এবং তিউনিশিয়ার এর সদর দপ্তর স্থানান্তর করে। এক দশক পরে ১৯৮৯ সালে মিশরকে আবার সদস্যপদ দেওয়া হলে। আরব লীগের সদর দপ্তর কায়রোরে পুনঃস্থাপিত হয়।

উল্লেখ যে মিশর ও ইসরাইলের মাঝে Camp David Accords স্বাক্ষরিত হয় ১৯৭৮ সালে ও শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় ১৯৭৯ সালে।

সদস্য সংখ্যা
বর্তমানে, লীগের ২২ টি সদস্য রয়েছে। ২০১১ সালে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু হলে, ক্ষমতাসীন আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে দমন-পীড়নের অভিযোগে সিরিয়ার অংশগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

আরব লীগ ও ফিলিস্তিন
আরব লীগ ফিলিস্তিন কে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসাবে বিবেচনা করে। ১৯৯৬ সালে আরব লীগ ফিলিস্তিন কে পূর্ণাঙ্গ সদস্য পদ দেয়। সাংস্কৃতিক ও ভাষাগত( রাজনৈতিক কারন ও আছে) কারনে ইরানকে এর সদস্যপদ দেওয়া হয় নি। তাই ইরান আরব লীগের অন্তর্ভুক্ত নয় [১৪তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]


লীগ এর প্রধান উদ্দেশ্য হচ্ছে

-সদস্য রাষ্ট্রগুলির মধ্যে সম্পর্ক বৃদ্ধি করা।
-সহযোগিতার সমন্বয় সাধন,
-স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা
-নিজেদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ঠ বিষয়গুলো বিবেচনা করা।

সম্মেলোন
২০১৮ সালে ৩৫তম সম্মেলোন হয় সৌদি আরবে। এপ্রিল ২০১৯- এ আরব লীগের ৩৬তম শীর্ষ সম্মেলন হবে তিউনিশিয়ার তিউনিসে।

Add a Comment