Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

সংবিধানের সপ্তদশ সংশোধনী

মূল বিষয়: মহিলাদের জন্য সংসদে আসন সংরক্ষিত থাকবে আরও ২৫ বছর
পাশ: ৮ জুলাই , ২০১৮
প্রস্তাবক: আইনমন্ত্রী আনিসুল হক
পাশের ধরণ: কণ্ঠভোট
কার্যকর: একাদশ সংসদের প্রথম বৈঠক শুরু হবার দিন থেকে এই ২৫ বছর
সংবিধাননে সংশ্লিষ্ট অনুচ্ছেদ :৬৫(৩)

বিস্তারিত
মহিলাদের জন্য জাতীয় সংসদে আসন সংরক্ষিত রাখার মেয়াদ আরও ২৫ বছর বাড়লো। মেয়াদ বৃদ্ধির এ প্রস্তাব সম্বলিত সংবিধানের সপ্তদশ সংশোধনী বিল গতকাল রবিবার সংসদে বিভক্তি ভোটে পাস হয়েছে। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সংবিধানের ৬৫ অনুচ্ছেদের অধিকতর সংশোধনকল্পে ‘সংবিধান (সপ্তদশ সংশোধন) বিল, ২০১৮’ পাসের প্রস্তাব করেন। সংবিধান সংশোধন বিল পাসের প্রক্রিয়া অনুযায়ী প্রস্তাবটি বিভক্তি ভোটে পাস হয়। উল্লেখ্য, বর্তমানে মহিলাদের জন্য সংসদে ৫০টি আসন সংরক্ষিত রয়েছে। একাদশ সংসদের প্রথম বৈঠক শুরু হবার দিন থেকে এই ২৫ বছর সময় গণনা হবে।

সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ক্ষমতাবলে বিলটির দফাগুলো একত্রে বিভক্তি ভোট দ্বারা কণ্ঠভোটে নিষ্পত্তি করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বিলটি পাসের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে প্রায় দুই ঘণ্টা লাগে। বিলটি পাসের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৬৫ এর দফা (৩) এর বিদ্যমান বিধান অনুযায়ী বর্তমানে সংরক্ষিত মহিলা আসনের ১০ বছর মেয়াদ ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারি শেষ হবে। সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে মেয়াদ বৃদ্ধি করা না হলে উক্ত সময় অতিবাহিত হওয়ার পর জাতীয় সংসদে মহিলাদের জন্য কোনো আসন সংরক্ষিত থাকবে না। সংরক্ষিত আসনের প্রয়োজনীয়তা এখনও বিদ্যমান। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আরও বলেন, তিনশ আসনে নারী-পুরুষ যে কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন। বর্তমান দশম সংসদে ৭৩ জন নারী, এরমধ্যে ২৩ জন সরাসরি ভোটে নির্বাচিত। পরে কণ্ঠভোটে সংশোধনী প্রস্তাবগুলোও নাকচ হয়।

From Facebook: BCS Written Preparation


👉 Read More...👇

Add a Comment