বিপিএসসি(BPSC)

১৯৭২ সালের এক প্রেসিডন্সিয়াল অর্ডারের ৩৪ নং ধারা বলে বিপিএসসি প্রতিষ্ঠিত করা হয়।

বাংলাদেশ সংবিধানের নবমভাগ- বাংলাদেশের কর্মবিভাগ, এর ২য় পরিচ্ছেদ- সরকারী কর্ম কমিশন। কর্ম কিমশন সম্পর্কে অনুচ্ছেদ আছে পাঁচটি

১৩৭। কমিশন-প্রতিষ্ঠা- আইনের দ্বারা এক বা একাধিক কর্ম কমিশন প্রতিষ্ঠা করা যাবে।
১৩৮। সদস্য-নিয়োগ- সভাপতি ও সদস্যদের নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি।
১৩৯। পদের মেয়াদ- নিয়োগের তারিখ থেকে পাঁচ বছর বা অধিষ্ঠিত ব্যক্তির বয়স ৬৫বছর যেটি আগে ঘটবে।
১৪০। কমিশনের দায়িত্ব- প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগদানের জন্য উপযুক্ত ব্যক্তিদিগকে মনোনয়নের উদ্দেশ্যে যাচাই ও পরীক্ষা-পরিচালনা ও অন্যান্য।
১৪১। বার্ষিক রিপোর্ট- প্রত্যেক কমিশন প্রতি বৎসর মার্চ মাসের প্রথম দিবসে বা তাহার পূর্বে পূর্ববর্তী একত্রিশে ডিসেম্বরে সমাপ্ত এক বৎসরে স্বীয় কার্যাবলী সম্বন্ধে রিপোর্ট প্রস্তুত করিবেন এবং তাহা রাষ্ট্রপতির নিকট পেশ করিবেন।

২০০৪ সালে সংবিধানের চতুর্দশ সংশোধনীর মাধ্যমে পিএসসির চেয়ারম্যানের অবসরের বয়স ৬২ বছর থেকে ৬৫ বছর করা হয়।

বর্তমান চেয়ারম্যান ও সদস্যগণ
ড. মোহাম্মদ সাদিক ১৯৫৫ সালে সুনামগঞ্জ জেলার ধাড়ারগাঁও গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ২০১৬ সালের ২ মে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদান করেন। এর পূর্বে তিনি গত ৩ নভেম্বর ২০১৪ থেকে এ কমিশনের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

বর্তমানে চেয়ারম্যান সহ পিএসসির সদস্য সংখ্যা ১৩ জন। তাদের মাঝে দুজন মহিলা সদস্য আছেন-
প্রফেসর ড. এস এম আনোয়ারা বেগম
নূরজাহান বেগম,এনডিসি