Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

বাক্য সংকোচন(ক)

কংসের শত্রু যিনি- কংসারি
কচি তৃণাবৃত ভূমি- শাদ্বল
কটিদেশ থেকে পদতল পর্যন্ত অংশ- অধঃকায়
কণ্ঠের সমীপে – উপকণ্ঠ
কথকতা বা পুরাণ পাঠ করেন যিনি- কথক
কথায় পটু- বাগীশ
কথায় বর্ণনা যায় না যা- অনির্বচনীয়
কথার মধ্যে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রসঙ্গ বা প্রবচনাদি প্রয়োগ- বুনি
কথা দিয়ে যিনি কথা রাখে- বাকনিষ্ঠ
কথা দ্বারা সৃষ্ট আবরণ- বাতাবরণ
কথা যে বলতে পারে না- অবলা
কনুই থেকে বদ্ধ মুষ্টি পর্যন্ত পরিমাণ- রত্নি
কন্ঠ পর্যন্ত- আকণ্ঠ
কন্যার পুত্র- দৌহিত্র
কপালে আঁকা তিলক- রসকলি
কবির পরিচয় জ্ঞাপক উক্তি- ভণিতা
কম আছে বা হইয়াছে যাহা- কমা
কম আহার করে যে- অল্পাহারী, স্বল্পহারী
কম কথা বলে যে- স্বল্পভাষী, স্বল্পবাক
কম বয়স যাহার- কমবয়সী
করার ইচ্ছা- চিকীর্ষা
করুণা আছে যার- কারুণিক
কর্ণ পর্যন্ত- আকর্ণ
কর্মে অতিশয় দক্ষ- কর্মঠ
কর্মে যাহার ক্লান্তি নেই- অক্লান্তকর্মী [21তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]
কর্ম করার শক্তি যার নেই- অকর্মণ্য
কর্ম করেন জিনি- কর্মী
কর দেয় যে- করদ
কলাজ্ঞান আছে যার- কলাবিদ
কল্পনার দ্বারা রচিত মূর্তি- ভাবমূর্তি
কষ্টিপাথরে ঘর্ষিত- নিকষিত
কষ্টে করা যায় যাহা- কষ্টকর
কষ্টে লাভ করা যায় যা / যা সহজে লাভ করা যায় না- দুর্লভ
কাচের তৈরি ঘর/বাড়ি – শিশমহল
কাজে যার অভিজ্ঞতা আছে- করিতকর্মা
কাঠে ঠক ঠক করিয়া ঠোকরায় যে- কাঠঠোকরা
কাঠ কাটে যে- কাঠুরিয়া
কাতর না হইয়া- অকাতর
কাতর হইয়া- সকাতরে
কানের পাশে লম্বিত কেশগুচ্ছ- কাকপক্ষ
কামের উত্তেজনায় অন্ধ যে- কামান্ধ
কাম ক্রোধ লোভাদির বশীভূত- অজিতেন্দ্রিয়
কাম লালসার উদ্রেক করে যাহা- কামোদ্দীপক
কার্কশ ধ্বনি- ক্রেঙ্কার
কালো হলুদের মিশানো রং- কপিশ, কপিল
কি করতে হবে তা বুঝতে না পারা- কিংকর্তব্যবিমূঢ়
কুকুরের ডাক – বুক্কন
কুবেরের ধন রক্ষক- যক্ষ
কুমারীর পুত্র -কানীনময়
কুম্ভ(মাটির পাত্র তৈরি) করে যে- কুম্ভকার
কুলের অলঙ্কার বা বিশিষ্ট মর্যাদা আনয়ন করে যে- কুলতিলক
কুলের আভিজাত্যের গর্বে গর্বিত যাহারা- কুলবিমানী
কুলের কল্যাণস্বরূপা যে গৃহিণী- কুললক্ষ্মী
কুলের কীর্তিতে কলঙ্ক লেপন করে যে- কুলাঙ্গার
কুলের কীর্তি বর্ধনকারী যে সন্তান- কুলপ্রদীপ
কুলে কলঙ্ক লেপন করে যে- কুল কলঙ্ক
কুলে বা বংশে বিশেষভাবে আচরিত যে ধর্ম- কুলধর্ম
কুল ত্যাগ করে যে- কুলটা, কুলত্যাগীনি
কুশের(তীক্ষ্ণাগ্র তৃণবিশেষ) অগ্রভাগের ন্যায় সূক্ষ্ম বুদ্ধি যাহার- কুশাগ্রবুদ্ধি
কুশের মতো সরু ও দুর্বল পা যাহার- কুশপা
কুৎসিত আকার যার- কদাকার
কৃষি যার জীবিকা- কৃষিজীবী
কৃষ্ণপক্ষের শেষ তিথি- অমাবস্যা
কৃষ্ণবর্ণ হরিণ- কালসার
কৃষ্ণের ন্যায় কমনীয়- কৃষ্ণকান্ত
কেউ জানতে না পারে এই রূপ ভাবে- অজ্ঞাতসারে
কেবল আপনার লাভ দেখে যে- স্বার্থপর
কোকিলের ডাক- কুহু
কোথাও উঁচু কোথাও নিচু – বন্ধুর
কোনকিছুতেই যাহার ভয় নাই- অকুতোভয়
কোনটা দিক কোনটা বিদিগ এই জ্ঞান নাই যাহার – দিগ্বিদিগজ্ঞানশূন্য
কোনভাবেই নিবারণ করা যায় না যা- অনিবার্য
কোনো উপকারে আসে না যে গাছ- আগাছা
কোনো কিছু থেকেই যার ভয় নেই- নির্ভীক, অকুতোভয়
কোনো কিছু পাবার ইচ্ছা – লিপ্সা
কোনো বিষয়ে নতুন পথ নির্দেশ করে যে- পথিকৃৎ
কোনো ভাবেই যা নিবারণ করা যায় না- অনিবার্য
কোন বিষয়ে যে শ্রদ্ধা হারিয়েছে- বীতশ্রদ্ধ
কোন লেখনের ছেঁড়া অংশ – কুপন
ক্রমকে বজায় রাখিয়া- ক্রমান্বয়ে, যথাক্রমে
ক্রমশই বর্ধিত হচ্ছে যা- ত্রমবর্ধমান
ক্রমাগত দুলছে এমন- দোদুল্যমান
ক্রমে এসেছে- ক্রমাগত
ক্রমে যা বেড়ে চলেছে- ক্রমবর্ধমান
ক্রয় করা হইয়াছে যাহা- ক্রীত
ক্রীড়নশীল তরঙ্গ- চলোর্মি
ক্রীত হইয়াছে যাবৎ জীবনের জন্য যে দাস- ক্রীতদাস

Add a Comment